cplusbd

নিউজটি শেয়ার করুন

৩ মাসের বেতন ভাতা বকেয়া, কেপিএমের ১ শ্রমিকের মৃত্যু

1st Image

কাপ্তাই (রাঙামাটি) প্রতিনিধি (২০১৯-০১-২৩ ০৭:১৫:৪৪)

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনায় ইউপিস্থ এশিয়ার বৃহত্তম কাগজ কল 'কর্ণফুলী পেপার মিলস' লিঃ (কেপিএম) এ প্রায় ৫ শতাধিক শ্রমিক-কর্মচারি গত ৩ মাসের বকেয়া বেতন-ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। অর্থের অভাবে ঋণ ও দেনার জালে জড়িয়ে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন। প্রচন্ড অসুস্থ্য হওয়া সত্ত্বেও চিকিৎসার ব্যায় বহন করতে না পেরে বাড়িতে শুয়ে কাতড়াতে হচ্ছে অনেকে। তবুও বেতন ভাতা না পেয়েই অনায়াসে কাজ করে যাচ্ছে তারা। মিলসটিতে অাশার অালো জ্বলবে জ্বলবে করেও জ্বলছেনা। অন্যদিকে এক পরিবারের অাশার অালো কেপিএমে কর্মরত শ্রমিকের জীবনের বাতি নিভে গিয়েছে সঙ্কা ও অভিমান নিয়ে। তিন মাস হার-ভাঙ্গা পরিশ্রম করেও যখন বেতন ভাতা পাওয়ার কোন সংকেত নেই ঠিক সে-সময়ে মঙ্গলবার সকাল থেকে অন্যান্য শ্রমিক-কর্মচারিদের ন্যায় ক্ষুদার্থ পেটে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পুরাতন স্কেল বাদ দিয়ে নতুন স্কেলে বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে কারখানাটির এমডি ডা. এম.এম.এ কাদেরকে অবরুদ্ধ করতে ব্যস্ত ছিল হাই স্কেল টেকনিশিয়ান (এইচ.এস.টি) - ১ এ কর্মরত মো. শাহ অালম। সকল শ্রমিকদের তোপের মুখে পরে অবশেষে পুরতন স্কেল বাদ দিয়ে নতুন স্কেলের ৭৫% বেতন প্রদান করতে রাজি হয় ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ। তবে দুঃখের বিষয় হলো, শাহ অালম গত প্রায় ৩মাস অাগে তার মেয়ের বিয়ে বাবদ ৫০হাজার টাকার দেনাগ্রস্থ হয়ে যায়। এমতবস্থায় এই ৭৫% (প্রায় ১৭হাজার) টাকা দিয়ে তার দেনা পরিশোষ করার চিন্তা নিয়ে ভোর সকালেই হ্রদ রোগে অাক্রান্ত হয়ে পরলোক গমন করে সে। মৃত্যুকালে তিনি ৩ছেলে ও ২মেয়ে রেখে যান। কেপিএমের সিবিএ সভাপতি মো. অাব্দুর রাজ্জাক শোক প্রকাশ করে বলেন, গতকাল পর্যন্তও তিনি অামাদের পাশে থেকে অামাদের অনুপ্রাণীত করেছেন। তিনি এই ৭৫% টাকা দিয়ে কি করবেন তার সঙ্কা নিয়েই স্টক করেন। এই বিষয়ে চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান অানোয়ার ইসলাম চৌধুরী বেবি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কেপিএমের এইচ.এস.টি-১ পদে কর্মরত শ্রমিক শাহ অালম তার তিন মাসের বকেয়া বেতনের সঙ্কা নিয়ে স্ট্রক করেন। অামারা এমনটা চাই না, কেপিএমে বর্তমানে শ্রমিক কর্মচারিরা যেভাবে নিরলশ শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন তাতে করে তাদের বেতন বকেয়া রাখার কোন যুক্তি অামার নজরে অাসেনা। তিনি অারও বলেন, সরকার নতুন স্কেল ঘোষণা করেছেন। এখানে এমডির কিসের ভিত্তিতে তাদের বেতন অাটকে রাখবে অামি বুঝতে পারিনা।