cplusbd

নিউজটি শেয়ার করুন

স্থগিত ২ কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ ১৩ জুন

চন্দনাইশে স্বতন্ত্র উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবদুল জব্বার চৌধুরীর গণসংযোগ

1st Image

চন্দনাইশ প্রতিনিধি (২০১৯-০৬-১১ ০৮:৪৬:০৯)

চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্থগিত দু'টি কেন্দ্রের পুনঃনির্বাচন আগামী ১৩ জুন (বৃহস্পতিবা) অনুষ্ঠিত হবে। উত্তর বরকল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পূর্ব চন্দনাইশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের নির্বাচনকে সামনে রেখে মঙ্গলবার (১১ জুন) চন্দনাইশ পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড ও বরকল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে দিনব্যাপী গণসংযোগ করেছেন স্বতন্ত্র উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী। এসময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক আবু আহমদ চৌধুরী জুনু, সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আরিফ, সাখাওয়াত হোসেন শিবলী, প্রচার সম্পাদক হেলাল উদ্দীন চৌধুরী, আ.লীগ নেতা শেখ টিপু চৌধুরী, আকতারুজ্জামান চৌধুরী ফাউন্ডেশন চন্দনাইশ শাখা সভাপতি আমজাদুল হক চৌধুরী দুলাল, হাসিমপুর ইউনিয়ন আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চন্দনাইশ শাখা সভাপতি নুরুল আমজাদ চৌধুরী প্রমুখ। গণসংযোগকালে কোন ধরনের বাধার সম্মুখিন হননি উল্লেখ করে জব্বার চৌধুরী বলেন, "প্রশাসন সম্পূর্ণ নিরেপক্ষ আচরণ করছে। জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে ২০০৯ সাল থেকে অদ্যাবধি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালণ করছি। গত ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত নির্বাচনের আগে উপজেলা আ.লীগের ৭১ সদস্যের মধ্যে ৪৮ জন আমাকে সমর্থন করেছে। এছাড়া ১৮৩ জন মুক্তিযোদ্ধা, ৮ জন ইউ.পি চেয়ারম্যানের মধ্যে ৬ জন, ইউনিয়ন আ.লীগের ২০ জন সভাপতি-সম্পাদকের মধ্যে ১৮ জন আমাকে সমর্থন করলেও নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হিসেবে কেন্দ্র থেকে দুর্ভাগ্যবশত আমার নাম না আসায় নেতাকর্মীদের প্রবল চাপের কারনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি।" জানা যায়, গত ২৪ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলাকালীন পূর্ব চন্দনাইশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পুলিশ প্রশাসনের সাথে একটি পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় এবং উত্তর বরকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের ঘটনায় কেন্দ্র দুইটির ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। উল্লেখ্য, গত ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী দোয়াত কলম প্রতীকে ২ হাজার ৬৩৪ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী একেএম নাজিম উদ্দীনের চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। এদিকে স্থগিত ২টি কেন্দ্রের মোট ভোটার ৪ হাজার ৪০৯ জন। ফলে এগিয়ে থাকা প্রার্থীর ভোটের চেয়ে স্থগিত ২ কেন্দ্রের ভোটার বেশি হওয়ায় ফলাফল স্থগিত হয়। আবদুল জব্বার চৌধুরী বেসরকারি ফলাফলে পেয়েছেন ২২ হাজার ২৮১ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী একেএম নাজিম উদ্দীন পেয়েছেন ১৯ হাজার ৬৪৭ ভোট।